মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

ডিইটি ঝিনাইদহের দপ্তর হইতে টেলিফোন সংযোগ ইন্টারনেট ও এডিএসএল সংযোগ নির্ধারিত ফরম পূরন পূর্বক ও ফি জমার মাধ্যমে সংযোগ প্রদান করা হইয়া থাকে।

ফরম সংগ্রহ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা
ল্যান্ডফোনের সংযোগ পেতে প্রথমেই বিটিসিএলের আবেদন ফরম সংগ্রহ করতে হবে। বিভাগীয় প্রকৌশলীর দপ্তর থেকে পাওয়া যায় এই আবেদন পত্র। ইন্টারনেট (www.btcl.gov.bd) থেকেও ফরম সংগ্রহ করা যায়। এটি পূরণ করে জমা দিতে হবে বিটিসিএলের সংশ্লিষ্ট বিভাগের বিভাগীয় প্রকৌশলী বরাবর। ঝিনাইদহ ও মাগুরা জেলার জন্য একজন বিভাগীয় প্রকৌশলী আছেন।

ফরমের সঙ্গে জমা দিতে হয়

  • আবেদনকারীর চার কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি
  • জাতীয় পরিচয়পত্র/ পাসপোর্ট/ আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স/ ড্রাইভিং লাইসেন্স/  কর্মস্থলের পরিচয়পত্র এর ফটোকপি
     

টাকার পরিমাণ ও জমা দেওয়ার স্থান
নির্ভূলভাবে পূরণকৃত ফরম বিভাগীয় প্রকৌশলী বরাবর জমা দিলে আবেদনকারীকে ডিমান্ড নোটের তিনটি কপি দেওয়া হয়। এই তিনটি কপির তথ্যাদি পূরণ করে ৬৪৫.০০ টাকা সহ অগ্রণী/বেসিক ব্যাংকে জমা দিতে হয়। এই ৬৪৫.০০ মধ্যে ৩০০.০০ টাকা সংযোগ ফি, ৪৫.০০ টাকা ভ্যাট  ও ৩০০.০০ টাকা জামানত হিসেবে জমা রাখা হয়। ব্যাংক একটি ডিমান্ড নোট রেখে বাকি দুটি ডিমান্ড নোট ফেরত দেয়।
সংযোগ প্রক্রিয়া

দুটি ডিমান্ড নোটের একটি আবেদনকারীকে নিজের কাছে রেখে অপরটি বিভাগীয় প্রকৌশলীর দপ্তরে জমা দিতে হয়। জমা দেওয়ার এক থেকে সাত দিনের মধ্যে বাসায় টেলিফোনের সংযোগ দেওয়া হয়। প্রকাশ থাকে যে, টেলিফোন সংযোগের জন্য তার ও টেলিফোন সেট গ্রাহক নিজ দায়িত্বে সংগ্রহ করিবেন।

 

ছবি


সংযুক্তি



Share with :

Facebook Twitter